প্রে’মিককে প্রকাশ্যে দু’ধ পান করাতে বা’ধ্য হলেন গৃহবধু

ভিন রাজ্যে পা’’লি’’য়েও শেষ র’ক্ষা হল না। পঞ্চায়েতের লম্বা হাত ধাওয়া ক’’রে আবার তাদের পাকড়ে আনল গ্রামে। ‘অপরাধের’ শা’স্তি হিসেবে এরপর প্র’কাশ্যে প্রেমিককে স্ত’ন্যপান ক’’রাতে বাধ্য ক’’রা হল পঁচিশের বধূকে।

ঘ’টনা মধ্যপ্রদেশের। খাপ পঞ্চায়েতের ব’জ্রমুষ্টি এড়িয়ে কোথাও লুকোনোর জো নেই। স’ম্প্রতি এই সত্য ফের উপলব্ধি করলেন মধ্যপ্রদেশের এক প্রেমিক যুগল। ইন্দোরের ২০০ কিলোমিটার পশ্চিমে ভিল সম্প্রদা’’য় অধ্যূষিত আলিরাজপুর জে’লার এক বিবাহিতা তরু’’ণীর প্রেমে পড়ে বয়সে কিছু ছোট সদ্য কুড়ির ঘরে পা রাখা একই গ্রামের তরুণ।

পর’’কী’’য়া প্রেমের আর্জি যে কোনও মতেই গ্রামের মা’’তব্ব’’রদের অনুমোদন পাবে না’ সে কথা বুঝতে পেরে গো’পনে ঘর ছাড়েন প্রণয়ীরা। রাজ্যের সীমা টপকে পড়শি রাজ্য গুজরাতে আশ্রয় নেন তাঁরা। কিন্তু তবু পঞ্চায়েতের কড়া নজরকে ফাঁকি দেওয়া যায়নি। শেষ পর্যন্ত অ’’জ্ঞা’’ত বাস থেকে তাঁদের টেনে-হিঁচড়ে ফিরিয়ে আনা হয় গ্রামে।

পর’’কী’’য়ার অপরাধে পঞ্চায়েতের আদেশে গত ৩১ ডিসেম্বর ধৃত যুগলের মাথা কামিয়ে দেওয়া হয়। তারপর মুরুব্বিদের নির্দে’’শে গোটা গ্রামকে সা”’ক্ষী রেখে প্রেমিককে স্ত’ন্যপান ক’’রাতে বাধ্য হন বধূ। ঘ’টনার পর গ্রাম পঞ্চায়েতের সদস্য জনৈক নাকেদিয়া-সহ মোট ১২ জনের বি’’রুদ্ধে স্থা’নীয় থা’নায় অ’ভিযো’’গ দা’য়ের ক’রেছেন ওই তরু’’ণী।

ইতিমধ্যে জি’’জ্ঞা’’সাবা’’দের জন্য কয়েকজনকে আ’’টক ক’’রা হয়েছে বলে জা’নিয়েছেন আলিরাজপুর জে’লা পু’লিশের এস পি অখিলেশ ঝা। আরোও পড়ুনঃ পাঁচ মিনিটেই ব্রণ থেকে মুক্তি দেবে রসুন!—’-রসুন খাবারের স্বাদ বাড়াতে বেশ কা’র্যকরী। এছাড়াও এটি দে’হের নানা রো’গ প্র’তিরো’ধে সহায়তা ক’’রে। জা’নেন কি’ খাবাস্র রান্না বা রসুন শুধু স্বা’স্থ্যের জন্যই উপকারী নয়’ ত্বকের যত্নেও বেশ কা’র্যকরী।

রসুন রূপচর্চায় বেশ ভালো ভূমিকা পা’লন ক’’রে। ব্রণের স’মস্যায় ভো’গেন অধিকাংশ নারী। এই স’মস্যা থেকে মু’ক্তি পাওয়ার জন্য নানা রকম পদ্ধতি অবলম্বন ক’’রেন তারা। তবে খুব অল্প সময়ে ব্রণ থেকে মু’ক্তি পাওয়ার জন্য রসুনের কোনো বিকল্প নেই। চলুন জে’নে নেয়া যাক পদ্ধতিটি-

এক কোয়া রসুনের রস ব্রণের উপর লাগিয়ে পাঁচ মিনিট রাখু’ন। এবার তা ধুয়ে ফেলুন। কয়েকদিন এর ব্যবহারে যে ফলাফল দেখবেন তাতে আপনি চ’মকে যাবেন। তবে অতিরি’ক্ত ব্রণের স’মস্যায় ভুগে থাকলে অবশ্যই চিকি’ৎসকের প’রামর্শ নিন।