তৃতীয় বিয়ে করে দেশজুড়ে আলোচনায় অভিনেত্রী শমী কায়সার

মঞ্চ ও টেলিভিশনের একসময়ের জনপ্রিয় অভিনয়শিল্পী শমী কায়সার আবারও বিয়ে ক’রেছেন। বরের নাম রেজা আমিন। রেজা পেশায় একজন ব্যবসায়ী। পরিণয়ের আগে উভ’য়েই ভালো ব’ন্ধু ছিলেন।

সেই ব’ন্ধুত্ব থেকেই একে অপরের প্রতি ভালো লা’গা এবং প্রণয় থেকে পরিণয়। বিয়েতে দুই পক্ষের পরিবারের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন বলে শমী কায়সারের ঘনিষ্ট এক মিডিয়াক’র্মী নি’শ্চিত ক’রেছেন। শমী কায়সারের তৃতীয় বিয়ে এটি। এর আগে ১৯৯৯ সালে পশ্চিমবঙ্গের চিত্রনির্মাতা রিঙ্গোকে বিয়ে ক’রেন শমী কায়সার।

তাদের সংসারের স্থায়িত্ব ছিল দুই বছর। নানা কারণে তাদের মধ্যে দূ’রত্ব বেড়ে গেলে সেই বিয়ে ভে’ঙে যায়। এরপর শমী বিয়ে ক’রেন একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক আরাফাতকে। ১৯৮৯ সালে পরিচালক আতিকুল হক চৌধুরী এমন একজন মেয়ে খুঁজছিলেন, যে কিনা নোয়াখালীর আঞ্চলিক ভাষায় কথা বলতে পারে,

তার নাটক কেবা আপন কেবা পর এ অভিনয়ের জন্যে। এর ফলে শমী প্রথম অভিনয়ের সুযোগ পান। এরপর তিনি কথাসাহিত্যিক ইমদাদুল হক মি’লনের উপন্যাস অবলম্বনে এবং আব্দুল্লাহ আল মামুনের পরিচালনায় তিন পর্বের ধারাবাহিক নাটক যত দূ’রে যাই এ অভিনয় ক’রে পরিচিত লাভ ক’রেন।

তারপর তিনি বহু নাটকে যেমন, নক্ষ’ত্রের রাত, ছোট ছোট ঢেউ, স্পর্ষ, একজন, অরণ্য, আকাশে অনেক রাত, মু’ক্তি, অন্তরে নিরন্তরে, স্বপ্ন, ঠিকানা সহ বিভিন্ন নাটকে অভিনয় ক’রেছেন।

আরোও পড়ূনঃ আমাকে হোটে’লে যাওয়ার প্র’স্তাব দেয়: সানাই মাহবুব—-শোবিজ অ’ঙ্গনের পরিচিত মুখ মডেল-অভিনেত্রী সানাই মাহবুব। বেশ কয়েকটি সিনেমায় কাজও ক’রেছেন। তবে সেগুলো আলোর মুখ দেখার আগেই সানাই বিভিন্ন কারণে পরিচিতি পেয়েছেন। গত কয়েকদিন ধ’রে সানাই তার ফেসবুকে হাফিজুর রহমান শফিক নামে এক ব্য’ক্তির বি’রুদ্ধে কু-প্র’স্তাব দেওয়ার অ’ভিযোগ ক’রে আ’সছেন।

প্রমাণ হিসেবে কিছু স্ক্রিনশট সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্র’কাশ ক’রেছেন। শেষ পর্যন্ত বিষয়টি থা’না পর্যন্ত গড়িয়েছে। গত ১৭ সেপ্টেম্বর এ বিষয়ে রাজধানীর গুলশান থা’নায় একটি সাধারণ ডায়েরি ক’রেছেন সানাই। এ প্রস’ঙ্গে রাইজিংবিডিকে সানাই বলেন, ‘প্রথমে আমাকে ফোন ক’রে নিজেকে গণমাধ্যমক’র্মী বলে পরিচয় দেন। এরপর কোন গণমাধ্যমে কাজ ক’রেন জানতে চাই।

তখন তিনি একটি অনলাইন সংবাদমাধ্যমের নাম বলেন। তারপর ফেসবুকে আমাকে ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট পাঠান। ব’ন্ধু তালিকায় নেয়ার পরই শুরু হয় তার অ’ত্যা’চার।’ সানাই আরো বলেন, ‘‘আমাকে একটি তারকা হোটেলে যাওয়ার প্রস্তাব দেয়। আমি রাজি হইনি। তখন সে বলে, আপনি এখানে আসেন। আপনি এত ওপেন, হট…বুঝছেন না! এসব শুনে আমা’র খুব বির’ক্ত লাগে। আরো অনেক কথা বলেছেন। তারপরই আমি আ’ইনানুগ ব্যব’স্থা গ্রহণের কথা তাকে জা’নাই।

বাধ্য হয়ে জিডি করি। জিডি ক’রার পর চ্যাট রিমুভ ক’রে দেয় হাফিজুর রহমান শফিক নামে ওই ব্য’ক্তি।’’ সানাই মাহবুব কয়েকটি গানের মিউজিক ভিডিওতে কাজ ক’রেছেন। দুটি চলচ্চিত্রে চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন। এর মধ্যে ‘ম’য়নার ইতিকথা’, দেওয়ান নাজমুলের ‘শালবনের মহুয়া’ চলচ্চিত্রের শু’টিং শেষ ক’রেছেন। তার অভিনীত ‘সুপ্ত আ’গুন’ সিনেমাটি সেন্সর বোর্ডে জমা দেওয়া হয়েছে।